প্রতিষ্ঠানের নিয়ম শৃঙ্খলা

নিয়মাবলী

নিয়মাবলী: ভর্তিঃ প্রতি বছর ডিসেম্বর মাসের শেষ সপ্তাহে প্রথম শ্রেণিতে শিক্ষার্র্থী ভর্তি করা হয়। অন্যান্য শ্রেণিতে আসন খালি থাকা সাপেক্ষে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হয়। ভর্তির জন্য নির্ধারিত ফরমে আবেদন করতে হয়। ভর্তি পরীক্ষায় মেধার ভিত্তিতে নির্বাচিত শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পায়।
শিক্ষাবর্ষঃ পহেলা জানুয়ারি হতে একত্রিশে ডিসেম্বর।
বিদ্যালয়ের সময়সূচীঃ বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের শ্রম ও কল্যাণ পরিদপ্তরের ২৩.০৮.৮৪ ইং তারিখের দপ্তরাদেশ নং-বিউবো (শ্রম) বিবিধ-৭০/৭৬/৬৫৬ অনুসারে বিদ্যালয়ের সময়সূচী সকাল ৮:০০ টা হতে বিকাল ২:০০ টা পর্যন্ত।
অনুমোদিত বিভাগসমূহঃ বিদ্যালয়ে নবম-দশম শ্রেণিতে বিজ্ঞান ও মানবিক বিভাগে সিলেট শিক্ষাবোর্ড কতর্ৃৃক পাঠদানের অনুমোদন রয়েছে।
অধ্যয়নের বিষয়সমূহঃ জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড কর্তৃক নির্ধারিত ও অনুমোদিত পুস্তকসমূহ।
বিভাগ নির্বাচনঃ নবম শ্রেণিতে বিজ্ঞান বিভাগ নির্বাচনের ক্ষেত্রে জেএসসি পরীক্ষায় গণিত ও বিজ্ঞান বিষয়ের প্রতিটিতে ন্যুনতম “এ” গ্রেড পাওয়া প্রয়োজন। তাছাড়া নবম শ্রেণিতে উচ্চতর গণিত বিষয়টি নিতে হলে আবশ্যকীয়ভাবে জেএসসি পরীক্ষায় গণিত বিষয়ে “এ+” গ্রেড পেতে হবে।
পরীক্ষাঃ বিদ্যালয়ে সাপ্তাহিক ও মাসিক পরীক্ষা প্রচলিত আছে। তাছাড়া শিক্ষার্থীদের প্রস্তুতির স্বার্থে দুটি মডেল টেস্ট নেয়া হয়। অর্ধ-বার্ষিক/ প্রাক্ নির্বাচনী, বার্ষিক/ নির্বাচনী পরীক্ষার ফলাফল গ্রেডিং পদ্ধতিতে প্রকাশ করা হয় এবং বার্ষিক/ নির্বাচনী পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে পরবর্তী শ্রেণিতে প্রমোশন/ পাবলিক পরীক্ষায় সেন্ট-আপ করা হয়। প্রতি পরীক্ষার প্রগতিপত্র অভিভাবকের নিকট পাঠানো হয়।
ফলাফলঃ কেবলমাত্র সকল বিষয়ে উত্তীর্ণ ছাত্র/ ছাত্রীদের পরবর্তী শ্রেণিতে প্রমোশন/ পাবলিক পরীক্ষায় সেন্ট-আপ করা হয়। অনুত্তীর্ণ শিক্ষার্থীর পরবর্তী শ্রেণিতে প্রমোশন বা পাবলিক পরীক্ষায় সেন্ট-আপ এর জন্য তদবির/ সুপারিশ কোনভাবেই কাম্য নয়।
উত্তরপত্র নিরীক্ষণঃ বার্ষিক পরীক্ষার উত্তরপত্র নিরীক্ষণ করতে হলে প্রতি পত্রের জন্য ১০০/- টাকা হারে “প্রধান শিক্ষক, বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড উচ্চ বিদ্যালয়, শাহজিবাজার” এর অনুকূলে সঞ্চয়ী হিসাব নং- ৬৬৬-৮, জনতা ব্যাংক লিঃ, শায়েস্তাগঞ্জ শাখা, হবিগঞ্জে ডিডি/ পে-অর্ডার করতঃ নির্ধারিত আবেদনপত্র পূরণ করে ফলাফল প্রকাশের সাত দিনের মধ্যে প্রধান শিক্ষক বরাবরে জমা দিতে হবে।
প্রাত্যহিক সমাবেশঃ প্রাত্যহিক সমাবেশে প্রার্থনা, শপথ, জাতীয় সংগীত এবং শরীরচর্চার ব্যবস্থা থাকে। প্রাত্যহিক সমাবেশের অনুষ্ঠানমালায় সকলের অংশগ্রহণ বাধ্যতামূলক।
জাতীয় দিবস উদযাপনঃ যথাযথ মর্যাদা ও ভাব গাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে বিদ্যালয়ে জাতীয় দিবসসমূহ উদযাপন করা হয়। জাতীয় দিবসের অনুষ্ঠানমালায় সকল শিক্ষার্থীর অংশগ্রহণ বাধ্যতামূলক।
অনুপুস্থিতি/ ছুটিঃ পারিবারিক বা ব্যক্তিগত কারণে কোন শিক্ষার্থীর ছুটির প্রয়োজন হলে শিক্ষার্থীর পিতা/ মাতার স্বাক্ষরযুক্ত প্রধান শিক্ষক বরাবরে আবেদনের মাধ্যমে অগ্রিম ছুটি নেয়া যেতে পারে। যৌক্তিক কারণে কোন শিক্ষার্থীর অনুপস্থিতির ছুটির আবেদন তার পিতা/ মাতার সুপারিশের প্রেক্ষিতে মঞ্জুর করা যেতে পারে। যৌক্তিক কারণ ব্যতিত কোন শিক্ষার্থী বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত থাকলে কিংবা বিদ্যালয় থেকে পলায়ন করলে প্রতি দিনের জন্য ২০/- টাকা হারে জরিমানা আদায় করা হবে এবং এক মাসে সাতদিন অনুপস্থিত/ পলায়নের জন্য হাজিরা খাতা থেকে নাম কাটা পড়বে।
সংক্রামক রোগঃ কোন শিক্ষার্থী ছোঁয়াচে বা সংক্রামক রোগে আক্রান্ত হলে তা প্রধান শিক্ষককে অবহিত করতে হবে এবং প্রয়োজনবোধে সম্পূর্ণ আরোগ্য না হওয়া পর্যন্ত বিদ্যালয়ে আসা থেকে বিরত থাকতে হবে।
ছাড়পত্রঃ সাধারণতঃ ১ম থেকে ৮ম শ্রেণির কোন শিক্ষার্থীর বিদ্যালয়ের সমস্ত পাওনা পরিশোধ সাপেক্ষে পিতা/ মাতার স্বাক্ষর সম্বলিত আবেদনের প্রেক্ষিতে ছাড়পত্র প্রদান করা হয়। ৯ম-১০ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে সংম্লিষ্ট শিক্ষাবোর্ডের অনুমোদন সাপেক্ষে ছাড়পত্র ইস্যু করা হয়। শিক্ষার্র্থীর সাথে অভিভাবকের সাক্ষাৎকারঃ বিদ্যালয়চলাকালীন সময়ে প্রধান শিক্ষক/ সহকারী প্রধান শিক্ষকের অনুমতি ব্যতিত কোন অভিভাবক তাঁর সন্তান/ পোষ্যের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে পারবেন না।
নিরাপত্তা বিধিঃ বিদ্যালয়টি কেপিআই এলাকায় অবস্থিত বিধায় বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী এবং অভিভাবককে বিদ্যুৎ কেন্দ্রের নিরাপত্তা বিধি মেনে চলতে হবে।
শাস্তিঃ (ক) কোন শিক্ষার্থী বিদ্যালয়ের সম্পদ/ আসবাবপত্র বিনষ্ট করলে তাকে উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।
(খ) কোন শিক্ষার্থী যদি বিদ্যালয়ের নিয়ম-শৃঙ্খলা পরিপন্থী কোন কাজে লিপ্ত হয় বা পরোক্ষভাবে অন্যকে প্রলুব্ধ করে তাহলে তাকে বাধ্যতামূলক ছাড়পত্র দেয়া হবে।
(গ) কোন শিক্ষার্থী যদি মোবাইল ফোন/ গান বা ছবি সম্বলিত কোন ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস বিদ্যালয়ে আনে তবে তার মোবাইল ফোন/গান বা ছবি সম্বলিত কোন ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস বাজেয়াপ্ত করা হবে এবং তাকে বাধ্যতামূলক ছাড়পত্র দেয়া হবে।
(ঘ) কোন শিক্ষার্থী পরপর দুই বছর একই শ্রেণিতে অকৃতকার্য হলে তাকে বাধ্যতামূলক ছাড়পত্র দেয়া হবে।
(ঙ) কোন শিক্ষার্থী যদি বিদ্যালয়ের অভ্যন্তরীণ পরীক্ষায় কোন প্রকার অসদুপায় অবলম্বন করে তবে তার ঐ টার্মের পরীক্ষাসমূহ বাতিল করা হবে।